সত্যিকারের বন্ধু

ছোট্ট আলীমের মন খারাপ।তার কোন বন্ধু নেই।যাওবা একটা বন্ধু ছিল সেও তার বাবা মায়ের সাথে অন্য কোথাও চলে গেল।অবশ্য আলীমের ক্লাসে কিছু বন্ধু আছে কিন্তু

একটি কুড়িয়ে পাওয়া নাকফুল

মিরা কোথা থেকে যেন ছুটে আসলো।ওর হাত মুঠি করা,দেখেই বুঝা যাচ্ছে ভিতরে নিশ্চই কিছু একটা লুকিয়ে এনেছে।মিরার মা রান্না ঘরের ডুয়া গোবর মাটি দিয়ে লেপছিল।ওদের

ক্যাডেট কলেজের দারোয়ান

সীমান্ত রক্ষীরা যেমন অতন্দ্র প্রহরীর মত সীমান্ত পাহারা দেয় তেমনি ক্যাডেট কলেজের দারোয়ানদেরও অতন্দ্র প্রহরী হতে হয়।ক্যাডেট কলেজে বাইরে থেকে কোন চোর এসে চুরি করে

সিটিং সার্ভিস,নাকি চাঁদাবাজি

ঢাকার প্রায় প্রতিটি রুটেই সিটিং সার্ভিস বাস চলাচল করছে।মূলত জ্যামের কারণে সিটিং সার্ভিস বাস আর লোকাল বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে খুব বেশি ব্যবধান নেই।সময় একই লাগে।সিটিং

একটি সিএনজি কাহিনী

শাহ সাহেব লেন ধরে হাটছিলাম।উদ্দেশ্য আহসান মঞ্জিল যাদুঘরের ওদিকে যাবো।হাতে টাকা ছিলনা বলেই হাটছি।রাশেদের কাছে যদি কিছু টাকা ধার পাই এই আশায়।তবে পুরান ঢাকার অলিগলি

কার্টুন এবং শিশুদের ভবিষ্যত

আমরা এখন অতি আধুনিক হয়ে গেছি।সন্তানের হাত ধরে ঘুরতে যাওয়ার পরিবর্তে আমরা এখন বিদেশী ডগ নিয়ে ঘুরি কিংবা হাতে থাকে মোবাইল এবং অবিরাম স্যোশাল মিডিয়াতে

চাকরি ক্ষেত্রে বিষয় বৈষম্য কেন?

বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে এখন অনেক বিষয়ে পড়ানো হচ্ছে যা আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশের জন্য মোটেই যুগোপযোগী নয়।যে দেশে চাকরির বিজ্ঞাপন মানেই বিবিএ এমবিএ চাওয়া সে দেশে

বাঙ্গালীর ধৈর্য্য

হতাশাবাদীরা উদয়মান  সূর্যকে মনে করে অস্তগামী।হাতাশার চাদরে তারা এমনভাবে জড়িয়ে আছে যে সেখান থেকে আর বেরিয়ে আসতে পারছেনা। তাদের সামনে একটা গ্লাসের অর্ধেক পানি পূর্ণ

অস্তিত্বের সংকট

অস্তিত্বের সংকট হারিয়ে যেতে যেতে রেখে যাই কিছু স্মৃতি,বলে যাই কিছু কথা যদি কারো কাজে লাগে কিংবা অকাজে।