বিখ্যাত ক্যাডেট

বিখ্যাত ক্যাডেট সে নাম তার অলীন রোজ রোজ দেরি করে সে হয় ফল ইন।   ইভিনিং প্রেপটাতে দেয় রোজ ঘুম পরীক্ষা এলে তার পড়ার কি

ক্যাডেটের নাশতার রুটি

ডাইনিংএ দুটো চেয়ার ফাঁকা ছিল।খোঁজ নিয়ে দেখা গেল ও দুটোতে ক্লাস সেভেনের জনি আর বনির বসার কথা।ডিনার টাইম হয়ে যাওয়ার পরও ওরা আসেনি কেন?দুজনইকি মেডিকেলে

ক্যাডেট কলেজের দারোয়ান

সীমান্ত রক্ষীরা যেমন অতন্দ্র প্রহরীর মত সীমান্ত পাহারা দেয় তেমনি ক্যাডেট কলেজের দারোয়ানদেরও অতন্দ্র প্রহরী হতে হয়।ক্যাডেট কলেজে বাইরে থেকে কোন চোর এসে চুরি করে

ক্যাডেটের বাড়ি ফেরা

ট্রেনে ওঠার পর থেকে প্রান্তর যেন হাসি আর থামেইনা। যখন বাসায় ঢুকেছি তখনো সে হো হো করে হাসছে।আম্মু ওর হাসি দেখে অবাক হয়ে জানতে চাইলেন

রঙ্গীন ফানুস-শেষ চ্যাপ্টার

(মাঝের চ্যাপ্টার গুলো এখনো কম্পোজ শেষ হয়নি) মিনহাজ ফিরে এসে দেখলো সারা বাড়ি লোকারণ্য।আজতো কোন উৎসব নেই এ বাড়িতে।তাহলে এতো মানুষ জড় হয়েছে কেন?দূর থেকে

রঙ্গীন ফানুস, পর্ব-৩

জাকির বেশ ভাল মাবের্ল খেলতে পারতো।শুনেছি জাকির এখন বাইরে থাকে।ও যখনি খেলতে চাইতো আমরা তখন চুপসে যেতাম।কারণ ওর হাতের টিপ বা নিশানা চমৎকার।একবার বেশ মনে

রঙ্গীন ফানুস, পর্ব-২

     কবির স্যারের মুখে সেই প্রথম ক্যাডেট কলেজের নাম শুনি আমি।কিন্তু সে সম্পর্কে আমার কোন ধারনাই ছিলনা।কোন দিন ভুল করেও কবির স্যারকে জিজ্ঞেস করা হয়নি

রঙ্গীন ফানুস, পর্ব-১

(ক্যাডেট কলেজ লাইফ নিয়ে নতুন উপন্যাস) ১. রাজশাহী যাচ্ছি।ঝিনাইদাহ মোড় পেরিয়ে গাড়িটা সবেগে ছুটে চলেছে রাজশাহীর পথে।এই প্রথম রাজশাহী যাচ্ছি।কিছু দূর যেতেই হাতের ডান পাশে

ক্যাডেট জুনায়েদ এবং চাকমা সমাচার

ক্যাডেট জুনায়েদকে প্রথম দিন দেখেই মনে হয়েছিল সে আসলে চাকমা।কিন্তু আমি কথাটা জিজ্ঞেস করতে পারিনি। ভেবেছি পরে সুযোগ পেলে জিজ্ঞেস করবো যে দোস্ত তুইকি চাকমা?কিন্তু