ক্যাডেটের বাড়ি ফেরা

ট্রেনে ওঠার পর থেকে প্রান্তর যেন হাসি আর থামেইনা। যখন বাসায় ঢুকেছি তখনো সে হো হো করে হাসছে।আম্মু ওর হাসি দেখে অবাক হয়ে জানতে চাইলেন

তবুও মনে থাকবে

পাহাড়ের ঢাল বরাবর শহর থেকে একটি রাস্তা উত্তর দিকে চলে গেছে।দুই পাশে সবুজ চা বাগান চোখ জুড়িয়ে দেয়।এই পথ দিয়েই বিমানবন্দরে যেতে হয়।মালনিছড়া চা বাগান

স্মৃতিগুলো ভেসে ওঠে নিরব অশ্রুপাত

দেখতে দেখতে ছয়টা বছর পেরিয়ে গেলো।মাত্র কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে নামের আগে এক্স শব্দটি জুড়ে দেওয়া হবে।কম বেশি সবার মনটাই বিষন্ন।ক্যাডেট থেকে এক্স ক্যাডেট হওয়ার ক্ষণিক

বোকা ক্যাডেটের গল্প

কলেজ ছুটি হয়ে গেছে।বরাবরের মতই ভ্যাকেশানের দিনগুলো কাজে লাগাতে চায় ক্যাডেট সজল ।সজল আমার খুব ভাল বন্ধু।হাওড় অঞ্চলে বাড়ি হওয়ায় জেলে না হয়েও ওরা জন্ম

ক্যাডেট কলেজের দারোয়ান

সীমান্ত রক্ষীরা যেমন অতন্দ্র প্রহরীর মত সীমান্ত পাহারা দেয় তেমনি ক্যাডেট কলেজের দারোয়ানদেরও অতন্দ্র প্রহরী হতে হয়।ক্যাডেট কলেজে বাইরে থেকে কোন চোর এসে চুরি করে