ভিখারী থেকে ফ্যাশন মডেল

মানুষের জীবনের মোড় ঘুরতে সময় লাগে না।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম একদিকে যেমন মানুষকে হতাশায় ডোবাচ্ছে, ঠিক তার বিপরীতে অনেক মানুষের জীবন কিংবা ভাগ্য রাতারাতি বদলে দিচ্ছে এই মাধ্যম। এমন ঘটনা বিশ্বের সর্বত্র। এবার ফিলিপাইনে এমনই এক ঘটনা সামনে এসেছে। তেমনই এক ভাগ্যবতীর গল্প এটা। এক সময় যে রাস্তায় রাস্তায় ভিক্ষা করতো আজ সে বিশ্ব ব্যাপী আলোচিত এবং নামী মডেল।মেয়েটির নাম রিতা গাভিওয়ালা। থাকে ফিলিপাইনে। বয়স মাত্র ১৩। রিতা বাবা-মায়ের সঙ্গে যখন ফিলিপাইনের জামবাঙ্গা থেকে লুচেনা শহরে আসেন, তখন একদম কিশোরী। তার বাবা একজন ময়লা সংগ্রহকারী। রাস্তা বা ডাস্টবিন থেকে ময়লা সংগ্রহ করতেন। সে সময় বাসায় রিতার মা বাচ্চাদের দেখাশোনা করতেন। রিতারা পাঁচ ভাই-বোন। রিতা ‘বাদজাও গার্ল’ নামেও পরিচিত। সমুদ্রে ভাসমান জীবনযাপন করা একটি সম্প্রদায়ের নাম বাদজাও সম্প্রদায়। এই সম্প্রদায় থেকেই রিতার আগমন, যার কারণে তাকে এই নামে ডাকা হয়।

৪ বছর আগে রাস্তায় ভিক্ষা করত রিতা। কিন্তু ৪ বছর পর সে পরিণত হলো ফ্যাশন মডেল এবং অনলাইন সেলিব্রিটিতে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয় তার ছবি। ইনস্টাগ্রামেও রয়েছে লক্ষাধিক ফলোয়ার।২০১৬ সালে ফিলিপাইনের ফটোগ্রাফার তোফার লুসবান শহরে কুইন্টোতে বেড়াতে এসেছিল। সেখানেই রাস্তায় ভিক্ষা করা অবস্থায় রিতার সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হয়ে একটি ছবি তোলেন তিনি। এরপর ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেন তোফার। সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায় ছবিটি, আর বদলে যায় রিতার জীবন।২০১৬ সালে রিতার ছবি যখন ভাইরাল হয়, তখন তাকে ভালোবেসে অনেকেই আর্থিক সহায়তা দিয়েছিলেন। বেশ কয়েকটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড রিতাকে মডেলিংয়ের অফার দিয়ে বসে। বিভিন্ন টিভি শোতেও ডাক পড়তে শুরু হয় তার। সেই সময় ফিলিপাইনের অনেক নামি সুন্দরী এমনকি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়নদেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হন রিতা গাভিওলা। আর এ কারণে মাত্র ১৩ বছর বয়সেই টেলিভিশনের রিয়ালিটি শোতে অংশ নেওয়ার সুযোগ পান রিতা। এখন প্রচুর নেটিজেন রিতার প্রতি উৎসুক, উন্মুখ হয়ে থাকেন। কেননা, রিতা ইনস্টাগ্রামে যেসব ছবি প্রকাশ করেন, তা তরুণ হৃদয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে নেটিজেনদের দাবি।  

২০১৮ সালে ইউটিউবে একটি ভিডিও আপলোড করেন রিতা। যাতে তিনি তার নতুন বাড়ি সম্পর্কে তথ্য দিয়েছিলেন। তার আমেরিকান ফ্যান গ্রেস এই বাড়িটি তৈরি করতে সহায়তা করেছিলেন। রিতা আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি নিয়ে খবরে রয়েছেন। তবে এই মুহুর্তে তার অগ্রাধিকার হল পড়াশোনা শেষ করা। সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে অনেকেরই জীবন বদলে গেছে। তবে, তার মধ্যে যারা সর্বাধিক সাফল্য পেয়েছেন, তাদের মধ্যে একজন রিতা।


যখন  রিতার ছবি ইন্টারনেটের বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছিল, সেটা ৫ বছর আগের কথা- তখন তিনি অনেকের কাছ পছন্দ হয়েছিলেন। আর্থিকভাবে সহায়তাও করেছিলেন নেটিজেন ও সেলিব্রিটিরা।  ছবিটি ভাইরাল হয়ে গেলে বেশ কয়েকটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড রিতাকে একটি মডেলিংয়ে ডাকে। কিছুদিন পর টিভি শোতেও হাজির রিতা। 

রিতা গাভিওলা ২০১৮ সালে ইউটিউবে একটি ভিডিও আপলোড করেন। যেখানে তিনি তার নতুন বাড়ি সম্পর্কে তথ্য দিয়েছিলেন। তার আমেরিকান ভক্ত গ্রেস এই বাড়িটি তৈরি করতে সহায়তা করেছিলেন। তবে এই মুহূর্তে তার অগ্রাধিকার হলো পড়াশোনা শেষ করা।

10 জানুয়ারি 2021