হরিহরণপুরের হার্ড লকডাউন

হরিহরণপুরের বাসিন্দাদের যেন এই হার্ড লকডাউনে সমস্যায় পড়তে না হয় সে জন্য সেখানে অগণিত স্বেচ্ছাসেবকের সাথে কাজে নিয়োজিত ছিলেন কওকি ভাই। তার মুখ থেকে চলুন শুনি হরিহরণপুরের বাসিন্দাদের চাহিদা ও আব্দারের কথা— জানাচ্ছেন জাজাফী।

১। হ্যালো ভাইয়া শুনতে পাচ্ছেন? এখনতো মাত্র রাত আড়াইটা বাজে আশা করি বিরক্ত করছি না। যাই হোক ভাইয়া আমার খুব ইচ্ছে এখন কাচা আমের ছাল টা ছাড়িয়ে তার মধ্যে বেশি করে শুকনা মরিচের গুড়া দিয়ে একটু পুদিনা পাতা দিয়ে সরবত করে —-
কওকি ভাই বললেনঃ আপু তাহলে অপেক্ষা করুন ব্যবস্থা করছি। ওপাশ থেকে শোনা গেলো–
ভাইয়া ভাইয়া, তার মধ্যে একটু রুহ আফজা দিলে যে কালার টা আসবে সেটাই আসল। রুহআফজা দিতে ভুলবেন না কিন্তু।

২। হ্যালো কওকি ভাইয়া, আকাশে রামধনু উঠার পর সেটা যখন মিশে যায় সেই মুহূর্তে এর মধ্যে একটু ডিপ কমলা রং মিশিয়ে দিলে যেমন হবে সেই কালারের একটা শ্যাম্পু লাগবে।গা ঘিনঘিন করছে একটু গোসল করবো। কওকি ভাইয়া দেখলেন রাত তখন পৌনে চারটা বাজে।

৩।হ্যালো ভাইয়া শুনতে পাচ্ছেন? কওকি ভাইয়া বললেন হ্যা শুনতে পাচ্ছি বলুন আপনার কি প্রয়োজন। ওপাশ থেকে বললেন বাসায় মুরগীর রোষ্ট রান্না করেছি। কওকি ভাইয়া বললেন আমিকি খেতে আসবো? ওপাশ থেকে জানানো হলো আরে না না একটা দরকার। শুধু রোষ্টতো খাওয়া যাবে না তাই একটু আচার লাগবে। জলপাই অনেক্ক্ষণ সিদ্ধ করে রেড ক্যাপসিকামের রসের সাথে মিক্স করার পর তার মধ্যে এক চামচ ঘি আর তিন চামচ কালিজিরার তেল দিতে হবে। অবশ্য তেল কিন্তু ঢাকার আরমানিটোলার জুজুবাইয়ের দোকানের হতে হবে। একটু এনে দিতে পারবেন? কওকি ভাইয়া দেখলেন ঘড়িতে তখন বাজে রাত চারটা।

৪।ফোন রিসিভ করতেই শুনতে পেলেন হ্যালো ভাইয়া, ইট অনেক্ক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রেখে এর উপর মিষ্টি কুমড়া ঘষলে যেমন রং হয় সেই রকম রঙ হয়েছে এমন দুটো আনারস খেতে চাই। এনে দিতে পারবেন?

৫। আরেকজন ফোন করে কওকি ভাইয়াকে বললেন, ভাইয়া ভাইয়া মাটন ভ্যুনা পুড়ে গেলে যেমন কালার হয় আমার চুলের কালার সেরকম করতে চাই আপনিকি আমাকে সেই কালার এনে দিতে পারবেন সাথে সীতাকুন্ডু পাহাড়ের উপর বিক্রি হয় মুলতানি মাটি সেটাও খানিকটা লাগবে। এখনতো ভোর সোয়া চারটা বাজে আমার আবার গোসলের সময় হয়ে গেছে।…🙊

ভাবা যায় এগ্লা !!!!

কওকি ভাইয়া আর কি বলবেন ? তিনি বললেন

আমি বাবা সরল সহজ মানুষ। এতো প্যাচ আমার পোষায় না। আমি আপনাদের জন্য শুধু বেগুন ভর্তার মধ্যে একটু চিলি সস দিয়ে সেটা দুইদিন ফ্রিজে রেখে তার মধ্যে একটু স্ট্রবেরী ব্লেন্ডার করে দিলে যে রং টা হয় ওই রঙের আনারস,আচার,শ্যাম্পু এনে দিচ্ছি। চলবে?🐸🐸

ওপাশ থেকে লাইন কেটে গেলো বলে আর কিছু শোনা হলো না।

(লেখার মূল ভাবনা আমার পাতানো বউয়ের।)

১৯ জুন ২০২০